Header Ads

আফগানিস্তান এর রাজধানী কাবুল এ জোড়া বিস্ফোরণ এর ঘটনায় ঘটনাস্থলে নিজ চোখে "লাশের স্তূপ" দেখেছেন বিবিসির সেকান্দার কেরমানি নামক এক সাংবাদিক । ২৬ আগস্ট বৃহস্পতিবার সকল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লাশের স্তূপের ভিডিও চিত্র দেখা যায়।

Photo Credit : Wakil KOHSAR / AFP) (AFP)
 

কাবুল  বিমানবন্দর এর বাইরে বিস্ফোরণের এই  ঘটনায় ১৩ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম রয়টার্স সহ বেশ কিছু সংবাদ মাধ্যম। তবে এই বিস্ফোরণে নিহত ও আহতের সংখ্যা বাড়বে বলে আশঙ্কা করছেন বিবিসি এর সাংবাদিক কেরমানি।

অপরদিকে কাতার ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার  এম লতিফি কাবুল থেকে জানিয়েছেন, বিস্ফোরণ এর  হতাহতদের নিয়ে হাসপাতালের দিকে ছুটছে অর্ধশতাধিক গাড়ি ও অ্যাম্বুলেন্স। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষরা জানিয়েছেন, হামলায় অন্তত পক্ষে ৬০ জন আহত হয়েছেন এবং নিহত হয়েছেন ছয় জন। অবশ্য গার্ডিয়ান, রয়টার্স সহ আরো বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম তাদের প্রতিবেদনে এই বিস্ফোরণে ১৩ জন নিহতের হওয়ার কথা প্রকাশ করেছেন।
বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, এই হামলা কারা চালিয়েছে তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি ।

কাবুল বিমানবন্দর এর অ্যাবি গেইট এ এই হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে টুইটারে জানিয়েছেন পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি । সেই গেটসহ কাবুল বিমানবন্দর এর আরও তিনটি গেটে হামলা চালানো হতে পারে বলে এর আগে খবর পাওয়া যায়।

বিবিসি এর সংবাদদাতা জনাথান বিইল জানায়, ১ম হামলার পর ২য় আরেকটি বিস্ফোরণ ও গোলাগুলির শব্দ শোনা গেছে সেখানে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে এই বিস্ফোরণের ঘটনা সম্পর্কে জানানো হয়েছে।
বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানা গেছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন যখন আফগানিস্তান পরিস্থিতি নিয়ে নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করছেন তখন তাকে কাবুল বিমানবন্দর এর এই হামলা সম্পর্কে খবর দেওয়া হয়েছে।

অবশ্য, কাবুল এর বিস্ফোরণ ঘটনার কয়েক ঘণ্টা আগেও পশ্চিমা বিভিন্ন দেশের গোয়েন্দা সংস্থা গুলো আফগানিস্তানে হামলার আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলো।

Post a Comment

Previous Post Next Post

Google Ads

Next Part Google Ads